মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

আমাদের অর্জনসমূহ

প্রাথমকি শক্ষিার গুরুত্ব উপলব্ধি করে র্বতমান সরকার সমতাভত্তিকি ও মানসম্মত প্রাথমকি শক্ষিা নশ্চিতিকরণে নরিলসভাবে কাজ করে যাচ্ছ।ে মানসম্মত প্রাথমকি শক্ষিা নশ্চিতি করতে প্রয়োজন মানসম্মত শক্ষিক। যুগোপযোগী ও মানসম্মত শক্ষিক তরৈরি লক্ষ্যে পইিডপি-ি৩ এর আওতায় ২০১৩-১৪ শক্ষিার্বষে ১৯২ জন, ২০১৫-২০১৬ শক্ষিার্বষে ১৯১ জন এবং ২০১৬-২০১৭ শক্ষিার্বষে ২০২ জন শক্ষর্িাথী পটিআিই ব্রাহ্মণবাড়য়িা  থকেে ডপিএিড কর্ােস সম্পন্ন করনে। এর মাঝে ২০১৭-২০১৮ শক্ষিার্বষে র্৪থ টার্মে ২৩৭ জন শিক্ষার্থীর নিজ বিদ্যালয়ে অনুশীলন চলমান। আগামী জুন/২০১৮  মাসে চূড়ান্ত মূল্যূায়ন শেষ হবে।
শক্ষিকরে ধারাবাহকি পশোগত উন্নয়নরে জন্য অত্র পটিআিই ২০১৪ সালে  ১১টি বভিন্নিধরনরে স্বল্পকালীন প্রশক্ষিণ সফলতার সাথে সম্পন্ন কর।েযার মধ্যে রয়ছেে  বিষয়ভিত্তিক প্রশিক্ষকদের প্রশিক্ষণ, নিজস্ব বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের ওরিয়েন্টেশন, প্রশিক্ষণ বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ, আইসিটি ইন এডুকেশনসহ শিক্ষকদের চাকুরিকালীন বিভিন্ন প্রশিক্ষণ, চাহিদাভিত্তিক সাবক্লাস্টার প্রশিক্ষণের ম্যানুয়াল তৈরী ও ম্যানুয়াল অনুমোদনসহ উক্ত প্রশিক্ষণ সুপারভিশন ও মনিটরিং।  এরই ধারাবাহকিতায় ২০১৫ সালে ০৯ টি এবং ২০১৬ সালে ০২ টি অনুরূপ প্রশক্ষিণ সম্পন্ন করা হয়।। চলতি র্অথবছরে ২০১৭-১৮ অবকাঠামো উন্নয়ন ও মেরামত কাজের জন্য কোন প্রকার অর্থ বরাদ্দ পাওয়া যায় নাই।  প্রায় ৬৫ লক্ষ টাকার অবকাঠামাে উন্নয়নরে জন্য বরাদ্দ পাওয়া গছেে এবং উন্নয়ন মূলক কাজ চলমান আছ।ে
পটিআিই ব্রাহ্মণবাড়য়িা সংলগ্ন পরীক্ষণ বিদ্যালয়ের ছাত্র/ছাত্রীগণ ২০১১-২০১৭ সাল পর্যন্ত কৃতিত্বের সাথে ১০০% পাশ করেছে। ২০১৭ সালে সমাপনী পরীক্ষায় ৪ জন টেলেন্টপুল এবং ৩জন সাধারণ গ্রেডে বৃত্তি পেয়েছে। প্রাথমিক শিক্ষার গুরুত্ব উপলব্দি করে সবার জন্য মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিতকরণের নিমিত্ত পটিআিই ব্রাহ্মণবাড়য়িা এর কর্মকর্তাগণ প্রতি মাসে ব্রাহ্মণবাড়য়িা  জেলার বিভিন্ন বিদ্যালয় এবং উপজেলা রিসোর্স সেন্টার পরিদর্শন কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন।

 

ছবি


সংযুক্তি



Share with :

Facebook Twitter